//বাণিজ্যের প্রকারভেদ কি কি ব্যাখ্যা কর?
বাণিজ্যের প্রকারভেদ কি কি ব্যাখ্যা কর? Save

বাণিজ্যের প্রকারভেদ কি কি ব্যাখ্যা কর?

পণ্যদ্রব্য বা সেবাকর্ম বিনিময় ও বণ্টন সংক্রান্ত কাজকে বাণিজ্য বলে। অর্থাৎ শিল্পের উৎপাদিত পণ্য প্রকৃত গ্রাহকদের নিকট পৌঁছানোর জন্য সম্পাদিত সকল কার্যক্রমকে বাণিজ্য বলে।

বাণিজ্যের প্রকারভেদ:

  1. ট্রেড বা পণ্য বিনিময়
  2. ট্রেড বা পণ্য বিনিময় সহায়ক কার্যাবলি

ট্রেড বা পণ্য বিনিময়কে আবার দুই ভাগে ভাগ করে:

  1. অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য
    ১. পাইকারি ব্যবসায়
    ২. খুচরা ব্যবসায়
  2. বৈদেশিক বাণিজ্য
    ১. আমদানি
    ২. রপ্তানি
    ৩. পুনঃরপ্তানি

ট্রেড বা পণ্য বিনিময় সহায়ক কার্যাবলি আবার ৫ প্রকার:

  1. ব্যাংক
  2. বীমা
  3. পরিবহণ
  4. গুদামজাতকরণ
  5. বাজারজাতকরণ প্রসার বা বিজ্ঞাপন

ট্রেড বা পণ্য বিনিময়:

মুনাফা অর্জনের উদ্দেশ্যে পণ্যদ্রব্য ক্রয় বিক্রয় কার্যকে পণ্য বিনিময় বলে। ট্রেড বা পণ্য বিনিময়ের মাধ্যমে উৎপাদনকারী ও ভোগকারীর মধ্যে ব্যক্তিগত বা মালিকানাগত বাধা দূর করা যায়।

১. অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য: পণ্য দ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় যখন একটি দেশের ভৌগলিক সীমানার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে তখন তাকে অভ্যন্তরীন বাণিজ্য বলে।

২. বৈদেশিক বাণিজ্য: যখন এক দেশের সাথে অন্য দেশের মধ্যে পণ্য বা সেবা সামগ্রী বিনিময় করা হয় তখন তাকে বৈদেশিক বাণিজ্য বলে।

ট্রেড বা পণ্য বিনিময় সহায়ক কার্যাবলি:

বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ব্যবসায়কে বিভিন্ন ধরনের বাঁধার সম্মুখীন হতে হয়। এগুলি দূর করার জন্য ট্রেড বা পণ্য বিনিময়ের সহায়ক কাজগুলি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যেমন: অর্থগত বাধা দূর করে ব্যাংক, ঝুঁকিগত বাধা দূর করে বিমা, স্থানগত বাধা দূর করে পরিবহন, সময় বা কালগত বাধা দূর করে গুদামজাতকরণ, জ্ঞানগত বাধা দূর করে বিজ্ঞাপন।