//ইঞ্জিন কাকে বলে বা ইঞ্জিন কি? ইঞ্জিনের প্রকারভেদ কি কি?
ইঞ্জিন কাকে বলে বা ইঞ্জিন কি ইঞ্জিনের প্রকারভেদ কি কি Save

ইঞ্জিন কাকে বলে বা ইঞ্জিন কি? ইঞ্জিনের প্রকারভেদ কি কি?

ইঞ্জিন একটি গাড়ির অংশ যা জ্বালানী পোড়ায় এবং এটিকে যান্ত্রিক শক্তিতে রূপান্তরিত করে। সুতরাং, ইঞ্জিন হলো একটি সয়ংক্রিয় যন্ত্র যা জ্বালানি ও ফুয়েলকে পুড়িয়ে রাসায়নিক শক্তিকে প্রথমে তাপশক্তিতে এবং তাপশক্তিকে যান্ত্রিক শক্তিতে রূপান্তর করে।

সহজ ভাষায়, ইঞ্জিন হলো এমন একটি সয়ংক্রিয় যন্ত্র যেটি জ্বালানি পুড়িয়ে তাপশক্তি উৎপাদন করে এবং সেই তাপ শক্তিকে যান্ত্রিক শক্তিতে রূপান্তর করে নিজে চলে এবং অন্যসব যন্ত্রকে চালায়। তাপ শক্তিকে গতিতে রূপান্তরকারী ডিভাইসগুলিকে সাধারণত কেবল ইঞ্জিন হিসাবে উল্লেখ করা হয়।

ইঞ্জিনের প্রকারভেদ?

ইঞ্জিন প্রধানত ২ প্রকার: 

  1. Internal combustion engine / অভ্যন্তরীণ জ্বলন ইঞ্জিন
  2. External combustion engine / বাহ্যিক দহন ইঞ্জিন 

১. অভ্যন্তরীণ জ্বলন ইঞ্জিন: যেসব ইঞ্জিন গুলোর সিলিন্ডারের দহন প্রকোষ্ঠে জ্বালানি ও বাতাসের মিশ্রণকে দহন ঘটিয়ে বা পুড়িয়ে শক্তি উৎপাদন করে তাকে অন্তর্দহ ইঞ্জিন বা Internal combustion engine  বলে।

২. বাহ্যিক দহন ইঞ্জিন: যে ইঞ্জিনের জ্বালানী ইঞ্জিন এর বাইরে পুরানো হয় তাকে বাহ্যিক দহন ইঞ্জিন  বা external combustion engine বলে।

জ্বালানি অনুসারে Internal combustion engine ৩ প্রকার:

  1. পেট্রোল বা গ্যাসোলিন ইঞ্জিন
  2. ডিজেল ইঞ্জিন
  3. গ্যাস ইঞ্জিন

বর্তমানে যে বেশিরভাগ যানবাহন (যাত্রী গাড়ি এবং বাণিজ্যিক যানবাহন) বিক্রি হয় তা Internal combustion engine দিয়ে তৈরি হয়।

প্রজ্জলন অনুসারে ইঞ্জিন ২ প্রকার:

  1. স্পার্ক ইগনেশন
  2. কমপ্রেশন ইগনেশন
স্ট্রোক এর সংখ্যার উপর ইঞ্জিন ২ প্রকার হয়:
  1. দুই স্ট্রোক
  2. চার স্ট্রোক

ডিজাইনের উপর ভিত্তি করে ইঞ্জিন ২ প্রকার হয়:

  1. Responding engine / প্রতিক্রিয়া ইঞ্জিন
  2. Rotational engine / ঘূর্ণমান ইঞ্জিন

ভালভ এর অবস্থান অনুযায়ী ইঞ্জিন ৪ প্রকার হয়:

  1. L Head বা সাইড ভালভ ইঞ্জিন
  2. I-Head বা ইনলাইন ভালভ ইঞ্জিন
  3. F-Head ইঞ্জিন
  4. T-Head ইঞ্জিন

এই সবগুলিকে একসাথে LIFT বলা হয়।

কুলিং সিস্টেম: যে পদ্ধতির মাধ্যমে ইঞ্জিনের অতিরিক্ত তাপকে অপসারণ বা কমিয়ে ইঞ্জিনকে কার্যকারী তাপমাত্রায় রাখা হয় তাকে কুলিং সিস্টেম বলে।

কুলিং সিস্টেমের ধরন অনুসারে ইঞ্জিন দুই ধরনের:

  1. এয়ার কুলিং ইঞ্জিন
  2. ওয়াটার কুলিং ইঞ্জিন

অপারেশন সাইকেলের উপর ভিত্তি করে ইঞ্জিন ৩ প্রকার হয়:

  1. Otto cycle engine / অটো চক্র ইঞ্জিন
  2. Diesel cycle engine / ডিজেল চক্র ইঞ্জিন
  3. Double cycle engine or semi-diesel cycle engine / ডাবল সাইকেল ইঞ্জিন বা আধা-ডিজেল চক্র ইঞ্জিন

সিলিন্ডার এবং বিন্যাশ অনুসারে ইঞ্জিনকে আবার লিখিতভাবে ভাগ করা হয়েছে:

  • ইনলাইন ইঞ্জিন
  • ভি-টাইপ ইঞ্জিন
  • রেডিয়েল টাইপ ইঞ্জিন
  • রেডিয়াল সিলিন্ডার ইঞ্জিন
  • অপজাড সিলিন্ডার ইঞ্জিন

ইঞ্জিন অতিরিক্ত গরম হয় কেন: 

  • রেডিয়েটরে পানি না থাকলে বা কম থাকলে।
  • ইঞ্জিন ওয়েব (মবিল) না থাকলে বা কম থাকলে।
  • ফ্যান বেল্ট ছিঁড়ে গেলে।
  • অতিরিক্ত মাল বোঝাই করলে।
  • ইঞ্জিনের পানির পাম্প নষ্ট হলে।
  • ব্রেক জ্যাম হয়ে থাকলে।