//সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কি? Social Media সুবিধা ও অসুবিধা?
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কি? Save

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কি? Social Media সুবিধা ও অসুবিধা?

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বর্তমান যুগের খুব জনপ্রিয় একটি প্লাটফর্ম, এর মাধ্যমে মানুষ একে অন্যের সাথে তথ্য আদান-প্রদান বা যোগাযোগ করতে সক্ষম হচ্ছে।

সুতরাং আমরা বলতে পারি সোশ্যাল মিডিয়া হলো একটি কম্পিউটার ভিত্তিক প্রযুক্তি যার মাধ্যমে তথ্য সরবরাহ বা আদান-প্রদান করা যায়। আমরা প্রায়শই ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম, স্ন্যাপচ্যাট এবং অন্যান্য আরো সাইট এবং অ্যাপগুলিতে নানা ধরণের তথ্যপূর্ণ পোস্ট করি এ সবকিছুই সামাজিক যোগাযোগ এর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কাকে বলে?
  • Save

১০টি জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম:
  1. ফেসবুক
  2. টুইটার
  3. লিংকডইন
  4. ইনস্টাগ্রাম
  5. স্ন্যাপচ্যাট
  6. ইউটিউব(মিডিয়া শেয়ারিং সাইট)
  7. কোওড়া(Quora)
  8. রেডডিট(Reddit)
  9. পিন্টারেস্ট(Pinterest)
  10. Vimeo

উপরের ১০টি সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়াও আরো অনেক ধরণের সোশ্যাল মিডিয়া রয়েছে বর্তমান যুগে। প্রত্যেকটি সোশ্যাল মিডিয়ার একেকটি নির্দিষ্ট ক্যাটাগরির উপর নির্ভরশীল হয়ে থাকে।



সামাজিক যোগাযোম মাধ্যম ব্যবহারের সুবিধা সমূহ(Advantages):
  1. এটি বিশ্বের বিভিন্ন ব্যক্তির সাথে সংযুক্ত হওয়ার জন্য একটি দুর্দান্ত প্ল্যাটফর্ম।
  2. আপনার কাছের এবং প্রিয়জনের সাথে কথোপকথন করার জনপ্রিয় একটি মাধ্যম।
  3. আপনার মতামত প্রকাশ করার সুযোগ এবং অন্যের থেকে মতামত পাওয়ার সুযোগ।
  4. সোশ্যাল মিডিয়া সামাজিকভাবে বিচ্ছিন্ন প্রবীণ নাগরিকদের নিঃসঙ্গতা হ্রাস করতে সহায়তা করে।
  5. সামাজিক মিডিয়া সংকটজনিত সময় জনস্বাস্থ্য এবং সুরক্ষা তথ্যের দ্রুত প্রসারণের অনুমতি দেয়।
  6. সামাজিক মিডিয়া বিস্তৃত শ্রোতাদের জন্য একাডেমিক গবেষণা সরবরাহ করে, যা মানুষকে আগে দুর্গম শিক্ষাগ্রহণের অ্যাক্সেসের অনুমতি দেয়।
  7. লিংকডইনের মতো পেশাদার নেটওয়ার্কিং সাইটগুলি সংস্থা এবং চাকরি সন্ধানকারীদের কাজ সন্ধানে সংস্থাগুলি ব্যাপকভাবে সহায়তা করে থাকে
  8. বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ এর মাধ্যমে শিক্ষা কার্যক্রম হচ্ছে যার ফলে প্রত্যন্ত অঞ্চলের শিক্ষার্থীরাও ভালো মানের শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পাচ্ছে।
  9. আপনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিজ্ঞাপন ও নিবন্ধ ইত্যাদির প্রকাশের মাধ্যমে ব্যবসায়ের প্রচার করতে পারার সুযোগ।
  10. সোশ্যাল মিডিয়া সাংস্কৃতিক, জাতিগত এবং জাতীয় বাধা পেরিয়ে বন্ধুত্ব সৃষ্টি করে থাকে।



সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের অসুবিধা সমূহ(Disadvantages):
  1. সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচুর ভুয়া/ফেক ব্যবহারকারীর কারণে পর্ন ছবি এবং অশ্লীল মন্তব্য প্রকাশ করে নেওয়ার ক্রিয়াকলাপ রয়েছে।
  2. অসত্য তথ্য প্রকাশ করে কোন একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলের মাঝে উদ্বেগ সৃষ্টি করে থাকে।
  3. এটি একধরণের আসক্তির মতো, তরুন প্রজন্ম এটির নেতিবাচক ব্যবহারের ফলে তাদের বড় ক্ষতি সাধন হচ্ছে।
  4. সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যবহারের ফলে আপনার ব্যক্তিগত গোপনীয় তথ্য প্রকাশিত হতে পারে।
  5. আপনি যদি অতিমাত্রায় সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেন তাহলে এক পর্যায়ে আপনি এটির প্রতি আসক্তি হয়ে যাবেন এবং আপনি আপনার পিতামাতা এবং বন্ধুদের চেয়ে মিডিয়াকে বেশি সময় দেওয়া শুরু করবেন।
  6. অপরাধীরা অপরাধ করতে বিভিন্ন ধরনের ভুয়া খবর প্রচার করে সামাজিক মিডিয়া ব্যবহার করে।
  7. অতিরিক্ত সামাজিক মিডিয়া ব্যবহারের ফলে আপনার ব্যক্তিত্ব এবং মস্তিষ্কের ব্যাধি, এডিএইচডি এবং স্বকেন্দ্রিক ব্যক্তিত্ব বিশেষত যুবসমাজের বড় ক্ষতির কারণ হতে পারে।
  8. আপনি যদি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে কিছু শিখতে না পারেন তাহলে এটি আপনার মূল্যবান সময় নষ্ট করার কারণ।
  9. সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের ফলে আপনার হতাশার পরিমান বাড়াতে পারে।
  10. বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশিরভাগ সময়ই অনৈতিক/অসামাজিক কন্টেন্ট ভাইরাল হয়ে থাকে।

সামাজিক যোগাযোগ ব্যবহারের ফলে যেমন অনেক সুবিধা রয়েছে ঠিক তেমনি এর অনেক অসুবিধাও রয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের সময় আমরা সবসময়ই নেতিবাচক দিকগুলি এড়িয়ে চলবো এবং ইতিবাচক কর্মকান্ড করবো এবং অন্যকে ভালো কাজ করতে উৎসাহ করবো, তাহলেই আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার নেতিবাচক দিকগুলো এড়িয়ে চলতে পারবো।